এফিলিয়েট? এডসেন্স? লোকাল এসইও নাকি মার্কেটপ্লেস?

আসসালমু আলাইকুম। আশা করছি সকলে ভালো আছেন। জোবায়ের একাডেমির পক্ষথেকে সবাইকে স্বাগতম। আজকে আমরা খুবই গুত্বপূর্ন টপিক নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি। টাইটেল দেখেই বুঝতে পারছেন আসলে বিষয়টা কি। আসল বেপার হলো যারা এসইও শিখছেন এই প্রশ্নটা সকলের মাথায় ঘুরতে থাকে, এফিলিয়েট এডসেন্স নাকি মার্কেটপ্লেসে কাজ করাটা বেটার হবে। তাই তাদের জন্য আজকে এই চারটি বিষয়ের পজেটিভ ও নেগেটিভ দিক আলোচনা করবো যাতে করে আপনাদের সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হয়। চলুন তাহলে শুরু করা যাক।

এফিলিয়েট মার্কেটিং

এফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে আমরা সবাই কম বেশি জানি। যে কোন প্রডাক্টের রিভিউ লিখে একটা সাইট দাড় করাতে হয়। ভিজিটর এসে যদি সেই সাইট থেকে রিভিউ দেখে কোন প্রডাক্ট কেনে তাহলে সেই প্রডাক্ট বিক্রির জন্য আপনার একাউন্টে কমিশন যুক্ত হবে।

পজেটিভ দিক

  • এটি একটি স্মার্ট মার্কেটিং। ওয়াল্ডের বড় বড় প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর উপর ভিত্তি করে।
  • আপনি চাইলে উদ্যোক্তা হয়ে যেতে পারেন।
  • মাসে স্মার্ট এমাউন্ট ইনকাম করতে পারবেন।
  • একটি সাইট আপনার ভবিষ্যতের সঞ্চয় হতে পারে।
  • একটি এফিলিয়েট সাইট তৈরী করে আবার সেটি খুব ভালো দামে বিক্রি করে দিতে পারবেন।

নেগিটিভ দিক

  • বেশ ভালো এসইও নলেজ থাকতে হবে।
  • সাইট তৈরী করতে ইনভেষ্টমেন্ট দরকার হবে।
  • মার্কেটিং বা ব্যাকলিংক করতে ইনভেষ্টমেন্ট দরকার হবে।
  • ইনকাম শুরু হতে ৪ মাস থেকে ১ বছর সময় লেগে যেতে পারে।

এডসেন্স মার্কেটিং

এডসেন্স অনলাইনে উপার্জনের জন্য জনপ্রিয় মাধ্যমগুলোর ভিতর একটি। যে কোন একটা বিষয় নিয়ে একটি ওয়েব সাইট তৈরী করতে হয়। এডসেন্স এর জন্য গুগলের কাছে আবেদন করতে হয়। গুগল এপ্রোভ করলে, আপনার সাইটে এড বসাতে পারবেন। কোন ভিজিটর এডসেন্স এর এড এ ক্লিক করলে আপনার একাউন্টে ডলার জমা হবে।

পজেটিভ দিক

  • আপনি চাইলে উদ্যোক্তা হতে পারবেন।
  • মাসে স্মার্ট এমাউন্ট ইনকাম করতে পারবেন।
  • একটি সাইট আপনার সম্পদ হিসেবে গড়ে উঠবে।
  • চাইলে আপনার সা্ইট ভালো দামে বিক্রি করে দিতে পারবেন।

নেগেটিভ দিক

  • এসইও বিষয় দক্ষ হতে হবে।
  • সাইট তৈরী করতে ইনভেষ্টমেন্টের দরকার আছে।
  • ব্যাকলিংক বা মার্কেটিং করার জন্য ইনভেষ্টমেন্ট দরকার আছে।
  • ইনকাম শুরু হতে ৪ মাসের বেশি সময় লেগে যেতে পারে।

লোকাল এসইও

লোকাল এসইও ওয়াল্ডের খুবই জনপ্রিয় একটি বিষয়। লোকাল বিজনেসকে টার্গেট করে তার ভিজিটর বাড়িয়ে দিতে পারলে আপনি সেই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে মাসিক বা ফিক্সট কমিশন নিতে পারবেন। অন্যদিকে ক্লাইন্টদের ডাটাবেস তৈরী করে সেটা সেল করেও কমিশন নিতে পারবেন।

পজেটিভ দিক

  • একটা কাজ পাওয়ার মাধ্যমে আপনি মাসিক কমপক্ষে ৭০০ ডলারের সেলরী নিতে পারবেন।
  • লিড জেনাটে করে কমিশন পেতে পারেন।
  • এসইও করাটা তুলনামূলক ভাবে সহজ।
  • উদ্দ্যোক্তা হতে পারবেন।

নেগেটিভ দিক

  • লোকাল মার্কেট ও বিজনেস সম্পর্কে স্ট্রং নলেজ থাকতে হবে।
  • এসইও বিষয়ে ভালো দক্ষতা থাকতে হবে।
  • কাজ পাওয়াটা বেশ কঠিন।
  • রেংক করাটা সময় সাপেক্ষ।

মার্কেটপ্লেসে কাজ করা

ফাইভার, আপওয়ার্ক, ফ্রিল্যান্সার এসব বিষয়ে সকলের কম বেশি ধারনা আছে। বলতে গেলে অনলাইন থেকে উপার্জন বলতে অনেকে এসব প্লাটফর্মকে বুঝে থাকে। আপনার যে বিষয়েই দক্ষতা থাকুক না কেন আপনি চাইলে সেই দক্ষতা কাজে লাগিয়ে এসব মার্কেটপ্লেস থেকে সঠিক গাইড লাইনের মাধ্যমে উপর্জন করতে পারবেন। আজ যেহেতু আমরা এসইও নিয়ে কথা বলছি তাই নিচে এর পজেটিভ ও নেগেটিভ দিক আলোচনা করা হলো।

পজেটিভ দিক

  • মাসে স্মার্ট এমাউন্ট ইনকাম করতে পারবেন।
  • তেমন কোন ইনভেষ্টমেন্ট দরকার হয় না।
  • এসইও এর যে কোন একটা বিষয়ে নলেজ থাকলেই সেটাকে কাজে লাগিয়ে উপার্জন করা সম্ভব।
  • আপনি চাইলে উদ্দ্যোক্তা হতে পারবেন।

নেগেটিভ দিক

  • বর্তমানে কাজ পাওয়াটা বেশ কঠিন।
  • একাউন্ট এপ্রোভাল পাওয়া ও একাউন্ট রিচ করা বেশ কঠিন ও সময় সাপেক্ষ।
  • সারাজীবন বায়ারের পিছনে ছুটে জীবন পার করে দিতে হবে।
  • ভবিষ্যতে কমিশন ছাড়া কোন সম্পদ গড়ে উঠবে না।

সবশেষে

আশা করছি এই চারটা বিষয়ে আপনারা বেশ ধারনা পেয়ে গেছেন। জীবন আপনার তাই সিদ্ধান্তও আপনাকে নিতে হবে। আর যদি মনে করেন এসব সিদ্ধান্ত অন্য কেউ আপাকে দেবে তাহলে আপনি বোকার রাজ্যে বাস করছেন। কারন হলো, যে যে দিক নিয়ে কাজ করে তার মতামত কিন্তু সে দিকেই থাকবে। আমি লোকাল এসইও নজে সফল হয়েছি বলে আপনিও হতে পারবেন এমন কোন কথা নেই। এসব সিদ্ধান্ত নিয়ার আগে প্রয়োজনে আপনি আরো ঘাটাঘাটি করেন। আর মনে রাখবেন, দূর থেকে কিন্তু সকল পাহাড়কেই ছোট লাগে। কাছে গেলে বোঝা যায়, পাহাড়টি আসলে কতো বড়। আজকের মতে তাহলে এই পর্যন্ত। সবাই ভালো থাকবেন। সুস্থ থাকবেন।

3 thoughts on “এফিলিয়েট? এডসেন্স? লোকাল এসইও নাকি মার্কেটপ্লেস?”

  1. খুবি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তুলে ধরেছেন। আপনাকে ধন্যবাদ।

    Reply

Leave a Comment